লক্ষ্মীপুরে জেলেদের আনুষ্ঠানিক বিয়ে নৌকাতে বাসর

তারা জেলে। নৌকাতে তাদের জন্ম। নৌকাতেই ঘর-বাড়ি। জীবন ধারার কিছুই যেন নৌকার বাইরে নয়। আনুষ্ঠানিকভাবে বিয়ের কোন রেওয়াজ নেই তাদের। দু’পক্ষের মতামতের ভিত্তিতে নৌকাতে অনানুষ্ঠানিক বিয়ে হয়।
এ প্রথম আনুষ্ঠানিক বিয়ের অনুষ্ঠান। বর আসবে। কাগজের ফুল দিয়ে সজ্জ্বিত করা হয়েছে জেলে পল্লীর আশ-পাশের নৌকাগুলো, খোলা আকাশের নীচে তৈরি করেছে তোরণ। জেলে পল্লীতে জাক ঝমক এক অনুষ্ঠানের মধ্যে দিয়ে বিয়ের বন্ধনে আবদ্ধ হয় মোঃ নয়ন (২৩) ও আছমা বেগম (১৯)। বর নয়ন রায়পুর হাজী মারা গ্রামের মোঃ শাহজাহানের ছেলে। কনে আছমা একই এলাকার বাবুল সর্দারের মেয়ে। তারা বেশ কয়েক বছর যাবত কমলনগর উপজেলার মতির হাটে মেঘনা নদীতে নৌকা বসবাস করছেন। সোমবার রাতে নৌকাতে তাদের বাসর হয়েছে।
এর আগে রোববার দুপুরে বৌভাতের অনুষ্ঠান করা হয়। এতে স্থানীয় ও উভয় পক্ষের দুই শতাধিক মেহমান অংশ নেন। লক্ষ্মীপুরের কমলগরের মতিরহাট মেঘনা নদীর তীরে নিজেদের (জেলেদের) উদ্যোগে এ আয়োজন করা হয়। শনিবার (১০ মার্চ) সন্ধ্যায় গায়ে হলুদ অনুষ্ঠানও করেন তারা। এতে ডিজিটাল সাউন্ড সিস্টেমের মাধ্যমে নাচ-গান করা হয়। ব্যতিক্রম এ আয়োজন দেখতে আসেন গ্রামের তরুণ-তরুণী আর গৃহবধূরা। রাতভর আনন্দে মেতে উঠে জেলেরা।
এতে সার্বিক সহযোগিতা করেন স্থানীয় ইউপি সদস্য মেহদী হাছান লিটন, মতিরহাট উচ্চবিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ নুরুল আলম, ব্যবসায়ী সারু মিয়া, ব্যবসায়ী ফয়েজ, মালেক মিয়া, মোঃ খোকন ও ফারুক হোসেন।
মতিরহাট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ নুরুল আলম জানান, স্থানীয়দের সহযোগিতায় এমন আনুষ্ঠানিক বিয়ে জেলেদের জীবনে এ প্রথম।

0 মন্তব্য(গুলি)

Write Down Your Responses

Related Posts Plugin for WordPress, Blogger...