ম্যানসিটির কাছে বিধ্বস্ত রিয়াল মাদ্রিদ

প্রথমার্ধে দলের সেরা তারকাদেরই মাঠে নামিয়েছিলেন কোচ জিনেদিন জিদান। দ্বিতীয়ার্ধে একাদশ প্রায় পুরোটাই পরিবর্তন করে ফেলেন তিনি। তাতেই যেন পরিবর্তন হয়ে গেলো পুরো রিয়াল মাদ্রিদ। খর্ব শক্তির দলটিকে পেয়ে খেলায় মেতে উঠলো ম্যানচেস্টার সিটি। পেপ গার্দিওলার শিষ্যরা তাতেই আত্মবিশ্বাস জাগানিয়া এক জয় পেয়ে গেলো। ৪-১ গোলে বিধ্বস্ত করলো স্প্যানিশ লা লিগা এবং উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জয়ীদের।
অ্যাঞ্জেল মেমোরিয়াল কোলিসিয়ামে প্রায় ৯৪ হাজার দর্শকের সামনে ম্যানচেস্টার সিটির মুখোমুখি হয়েছিল রিয়াল মাদ্রিদ। যদিও আমেরিকায় ইন্টারন্যাশনাল চ্যাম্পিয়ন্স কাপে সেরা একাদশ সাজাতে পারেননি জিদান। কারণ, ছুটিতে থাকার কারণে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোকে ছাড়াই খেলতে নামতে হয়েছে লজ ব্লাঙ্কোজদের।
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে গিয়ে রোনালদোর অনুপস্থিতি বেশ ভালোই টের পেলো রিয়াল। প্রথম ম্যাচে ম্যানইউর সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র করার পর টাইব্রেকারে হেরে গিয়েছিল জিদানের শিষ্যরা। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের আরেক ক্লাব ম্যানসিটির মুখোমুখি হয়ে রীতিমত বিধ্বস্ত হতে হলো তাদেরকে।
প্রথমার্ধ পুরোটাই ছিল গোলশূন্য ড্র। দ্বিতীয়ার্ধে একাদশ পরিবর্তন করে ফেলার পরই জ্বলে ওঠে ম্যানসিটি। বিশেষ করে গোলরক্ষক কেইলর নাভাসকে তুলে ফেলার ফলই ভোগ করতে হয়েছে রিয়ালকে। কিকো ক্যাসিয়া ম্যানসিটির আক্রমণের মুখে নিজেকে পুরোপুরি সঁপে দিয়েছিলেন। যার ফলে প্রাক- মৌসুম প্রস্তুতি টুর্নামেন্টটা মোটেও ভালো হলো না রিয়াল মাদ্রিদের।
৫২ মিনিটে প্রথম গোল করে ম্যানসিটিকে এগিয়ে দেন আর্জেন্টাইন নিকোলাস ওতামেন্দি। এর ৭ মিনিট পর, ৫৯ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন রাহিম স্টার্লিং। খেলার ৬৭ মিনিটে তিন গুণ করেন জন স্টোনস। ৮২ মিনিটে চতুর্থবারের মত রিয়ালের জালে বল জড়ান ব্রাহিম দিয়াজ। খেলার একেবারে শেষ মিনিটে এসে একটি গোল পরিশোধ করেন অস্কার।

0 মন্তব্য(গুলি)

Write Down Your Responses

Related Posts Plugin for WordPress, Blogger...