লাকী আখন্দের মৃত্যুতে মন্ত্রিসভায় শোক প্রস্তাব গৃহীত

প্রখ্যাত সুরকার, সঙ্গীত পরিচালক ও গায়ক লাকী আখন্দের মৃত্যুতে মন্ত্রিসভায় শোক প্রস্তাব গৃহীত হয়েছে। সোমবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বৈঠকে এ শোক প্রস্তাব গৃহীত হয়।

বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম সাংবাদিকদের এ তথ্য জানিয়েছেন।

লাকী আখন্দের উল্লেখযোগ্য দিক তুলে ধরতে গিয়ে শফিউল আলম বলেন, তিনি ১৯৫৬ সালের ১৮ জুন ঢাকার আরমানিটোলায় জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৬৩ থেকে ১৯৬৭ সাল পর্যন্ত সময়ে শিশু বয়সেই রেডিও শিল্পী হিসেবে বিভিন্ন সঙ্গীত অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করতেন।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আহ্বানে মাত্র ১৫ বছর বয়সে লাকী আখন্দ মুক্তিযুদ্ধে সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণ করেন বলেও উল্লেখ করেন সচিব।

শুক্রবার সন্ধ্যা ৭টায় রাজধানীর আরমানিটোলায় নিজ বাসভবনে গুরুতর অসুস্থ হন লাকী আখন্দ। পরে তাকে দ্রুত স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আউটডোরে নিয়ে যাওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন। দীর্ঘদিন ক্যান্সারে ভুগছিলেন তিনি।

গুণী এ শিল্পীর সংগীতায়জনে করা বিখ্যাত গানগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো- এই নীল মনিহার, আবার এলো যে সন্ধ্যা, আমায় ডেকো না, মামনিয়া, আগে যদি জানতাম, হৃদয় আমার প্রভৃতি।

0 মন্তব্য(গুলি)

Write Down Your Responses

Related Posts Plugin for WordPress, Blogger...