কচ্ছপের পেট থেকে ৯১৫ মুদ্রা উদ্ধার

মানুষের অন্ধ বিশ্বাসের কারণে প্রাণ হারাতে বসেছিল একটি কচ্ছপ। থাইল্যান্ডের পূর্বাঞ্চলীয় শহর শ্রী রাচার একটি ঝরনার কাছে থাকত কচ্ছপটি। স্থানীয় মানুষদের বিশ্বাস এই ঝরনার কাছে কচ্ছপকে লক্ষ্য করে ধাতব মুদ্রা ছুড়ে মারলে আয়ু বাড়ে ও সৌভাগ্যের দরজা খুলে যায়। 

তাই যারাই ওই ঝরনার কাছে যায় তারাই কচ্ছপটিকে লক্ষ্য করে ধাতব মুদ্রা ছুড়ে মারেন। আর মুদ্রাগুলো গিলে ফেলতো কচ্ছপটি। সম্প্রতি অস্ত্রোপচারের পরে তার পাকস্থলি থেকে মোট ৯১৫টি ধাতব মুদ্রা উদ্ধার করেছেন চিকিত্ৎসকরা।

সোমবার থাইল্যান্ডে ২৫ বছর বয়সী ওই কচ্ছপটির পেটে অস্ত্রপচার করা হয়। এতোগুলো মুদ্রা গেলে ফেলায় কচ্ছপটির নাম দেয়া হয়েছে ব্যাংক। 

turtle
ভাগ্য ফেরাতে ও আয়ু বাড়াতে পর্যটকদের মধ্যে ফোয়ারার জলে ধাতব মুদ্রা ছুঁড়ে দেওয়ার প্রাচীন রীতি প্রচলিত রয়েছে। বিশেষ করে, ফোয়ারার বাসিন্দা কচ্ছপদের তাক করে মুদ্রা ছুঁড়তে পারলে সৌভাগ্য অর্জন করতে পারবে বলে বিশ্বাস করেন স্থানীয়রা। 

ফোয়ারাতে ছুড়ে মারা মুদ্রা গিলে গিলে কচ্ছপের মরার মতো অবস্থা দাঁড়িয়েছিল। এসব মুদ্রার মোট ওজন দাঁড়িয়েছিল প্রায় ৫ কেজি। মুদ্রার ভারে কচ্ছপের শরীরে ফাটল ধরেছিল। পাঁচজন শল্যচিকিত্সক ৪ ঘণ্টা অস্ত্রোপচার করে ওই মুদ্রাগুলো কচ্ছপটির পেট থেকে বের করেছে। সব মিলিয়ে ৯১৫টি মুদ্রা তার পেটে জমে ছিল। মুদ্রাগুলির অধিকাংশই বিবর্ণ হয়ে ক্ষয়ে গিয়েছে। মুদ্রার সঙ্গে ২টি মাছ ধরার বঁড়শিও ছিল কচ্ছপের পেটে।

0 মন্তব্য(গুলি)

Write Down Your Responses

Related Posts Plugin for WordPress, Blogger...