নতুন গবেষণার ফলেই দেশ আজ খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ : প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বর্তমান সরকার প্রতিটি ক্ষেত্রই গবেষণার ওপর অধিক গুরুত্ব দিয়েছে। এ কারণেই ধানসহ প্রতিটি খাদ্যশস্য অধিকহারে উৎপাদন হচ্ছে। গবেষণা এবং নতুন নতুন আবিষ্কারের ফলেই আজ আমরা খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ হয়েছি। সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ার ক্ষেত্রে গবেষণার বিকল্প নেই।

বৃহস্পতিবার সকালে রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় আয়োজিত বঙ্গবন্ধু ফেলোশিপ ও বিভিন্ন গবেষণা কাজের জন্য অনুদানের চেক প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। 

প্রধানমন্ত্রী বলেন, পঁচাত্তরে বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর যারা ক্ষমতায় ছিলেন তারা বিজ্ঞান ও গবেষণার জন্য একটি পয়সাও ব্যয় করেনি। একুশ বছর পর ক্ষমতায় এসে আমরা এ বিষয়টি লক্ষ্য করেছি। আমরা সরকার গঠন করার পরপরই  গবেষণার ক্ষেত্রে অধিক গুরুত্ব দিয়েছি। বিভিন্ন ক্ষেত্রে আলাদা বরাদ্দ দিয়েছি। 

তিনি বলেন, গবেষণা ছাড়া একটি দেশ কখনোই উন্নতি করতে পারে না। এ দেশে প্রথম মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় আমরাই করেছি। এছাড়া টেক্সটাইল বিশ্ববিদ্যালয়ও আমরাই করেছি। কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ও অনেকগুলো হয়েছে। 

সমুদ্র গবেষণার কাজ শুরু হয়েছে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এ জন্য গবেষণা উপযোগী একটি জাহাজ ক্রয়ের পরিকল্পনা হাতে নেয়া হয়েছে। সমুদ্রে কী আছে, সেখান থেকে আমরা কী মূল্যবান সম্পদ পেতে পারি সেটা নিয়েও গবেষণা চলছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ধান, পাট খাদ্যশস্যসহ সব কিছুতেই বিজ্ঞানের অবদান রয়েছে। বিজ্ঞান প্রযুক্তির অগ্রগতির কারণেই বাংলাদেশ আজ উন্নয়নের রোল মডেল। 

বিত্তবানদের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও গবেষণাগারের জন্য অনুদান দিতে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, শুধু সরকার নয়, দেশের উন্নয়নে বিত্তবানরাও এগিয়ে আসবেন।

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমান অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ডাঃ আ ফ ম রুহুল হক। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন মন্ত্রণালয়ের সচিব সিরাজুল ইসলাম।

,

0 মন্তব্য(গুলি)

Write Down Your Responses

Related Posts Plugin for WordPress, Blogger...