মেরকেলকে ট্রাম্প : ওবামা শাসনামলে আমরা দুজনই ফোনে আড়িপাতার শিকার

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার শাসনামলে জার্মান চ্যান্সেলর আঙ্গেলা মেরকেল এবং তিনি নিজে টেলিফোনে আড়িপাতার শিকার হয়েছেন।
প্রেসিডেন্ট হিসেবে হোয়াইট হাউসে জার্মান চ্যান্সেলরের সঙ্গে প্রথম বৈঠকে ট্রাম্প এ কথা বলেন।
এ দুই নেতা তাদের এ প্রথম বৈঠকে জঙ্গিগোষ্ঠী আইএসবিরোধী লড়াই, ন্যাটো জোটে সহায়তা বাড়ানো এবং ইউক্রেন সংকট সমাধানে একসঙ্গে কাজ করার অঙ্গীকার করেন। শুক্রবার হোয়াইট হাউজে তাদের মধ্যে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।
ট্রাম্প তার মুক্তবাণিজ্যে বিশ্বাসের কথা তুলে ধরে বলেন, দীর্ঘদিন থেকেই যুক্তরাষ্ট্র বাণিজ্য বৈষম্যের শিকার হচ্ছে, যার সমাধানে তিনি নতুন নতুন পদক্ষেপ নিচ্ছেন। তিনি আলোচনার মাধ্যমে বাণিজ্য বাধা দূর করার পক্ষে কথা বলেন।
ন্যাটো জোটের প্রতি মার্কিন প্রতিশ্রুতি অটল থাকবে উল্লেখ করে ট্রাম্প বলেন, এক্ষেত্রে সদস্য রাষ্ট্রগুলোকেও তাদের প্রতিশ্রুত অর্থ নিয়মিতভাবে পরিশোধ করতে হবে।
ট্রাম্প বলেন, ওমাবা প্রশাসনের সময় জার্মান চ্যান্সেলরের মতো তিনিও আড়িপাতার শিকার হয়েছেন।
এই অভিযোগটি তিনি বেশ কয়েকদিন ধরেই করে আসছেন। যার পাল্টা জবাবও ইতোমধ্যে দিয়েছেন ওবামা। আড়িপাতার বিষয়ে ট্রাম্পের করা অভিযোগ নাকচ করে ওবামা বলেন, এই অভিযোগ পুরোপুরি মিথ্যা। যার কোনো ভিত্তি নেই।
নিজের শাসনামলে বিচার বিভাগের কোনো তদন্ত কাজে প্রেসিডেন্ট বা হোয়াইট হাউস থেকে কখনও কোনো হস্তক্ষেপ করা হয়নি বলেও ওবামার পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে।
এদিকে, ট্রাম্প-মেরকেলের দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক উন্নয়নের বৈঠকে হৃদ্যতাপূর্ণ আলোচনা হলেও, অভিবাসন ও পররাষ্ট্র নীতিতে মতবিরোধ স্পষ্ট হয়েছে বলে জানিয়েছে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম।
বৈঠকে তাদের আন্ত:আটলান্টিক সম্পর্কের ভবিষ্যতের ভারসাম্য নিয়ে কথা হয়েছে। ইতোপূর্বে আঙ্গেলা মেরকেল ৬টি মুসলিম দেশ থেকে আমেরিকায় প্রবেশের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের জন্য ট্রাম্পের তীব্র সমালোচনা করেন। তবে এখন বিশ্বের অতি গুরুত্বপূর্ণ সমস্যা মোকাবেলার লক্ষ্যে আন্ত:আটলান্টিক অংশীদারিত্ব গড়ে তোলার জন্য মেরকেল কিছুটা নমনীয় বলে মনে করা হচ্ছে।
তাদের এই গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক মঙ্গলবার হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু যুক্তরাষ্ট্রে ব্যাপক তুষার ঝড়ের কারণে তার সফরসূচি পরিবর্তন করা হয়।
এদিকে গত জানুয়ারি মাসে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব নেয়ার আগে ট্রাম্প মেরকেলের শরণার্থী গ্রহণের সিদ্ধান্তের কঠোর সমালোচনা করেন এবং বলেন এটি তার একটি বড় ভুল সিদ্ধান্ত ছিল।

0 মন্তব্য(গুলি)

Write Down Your Responses

Related Posts Plugin for WordPress, Blogger...