মিরপুরে ‘বঙ্গবন্ধুর গল্প শুনি, মুক্তিযুদ্ধের গল্প বলি’

দেশজুড়ে ও বছরজুড়ে কিশোর-তরুণদের মধ্যে বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ছড়িয়ে দিতে ‘বঙ্গবন্ধুর গল্প শুনি, মুক্তিযুদ্ধের গল্প বলি’ কার্যক্রম শুরু হয়েছে।

বৃহস্পতিকার সকালে রাজধানীর মিরপুরের হযরত শাহ আলী (র.) মডেল হাই স্কুলে আনুষ্ঠানিকভাবে ‘আজ সারাবেলা’ আয়োজিত এ কার্যক্রম শুরু হয়।

এ সময় শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বঙ্গবন্ধুর জীবনের গল্প তুলে ধরেন মিডিয়া ব্যক্তিত্ব ও নাগরিক টিভির সিইও ডা. আব্দুন নূর তুষার।

তিনি বলেন, আমরা আজকে যাকে নিয়ে কথা বলতে এসেছি, তাকে নিয়ে আসলে বলার শেষ নেই। তিনি একজন মহান ব্যক্তিত্ব। জন্মেছিলেন সেই সময়ে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায়। বঙ্গবন্ধু তার জীবনে একটি লক্ষ্যকেই বেছে নিয়েছিলেন, তা হচ্ছে বাঙালি জাতির দীর্ঘ পরাধীন সময়কে অতিক্রম করে একটি স্বাধীন রাষ্ট্র হবে, একটি দেশ হবে, একটি পতাকা হবে। বাংলাদেশের মানুষ বাঙালি হিসেবে পরিচয় দিয়ে বিশ্ব দরবারে তার অবস্থান গড়ে নেবে।

শিক্ষার্থীদের বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধ সম্পর্কে আরও বেশি জ্ঞানার্জন করতে স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক বই পড়ার আহ্বান জানান তিনি। 

অনুষ্ঠানে সুচিন্তা ফাউন্ডেশনের পরিচালক ও আজ সারাবেলার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক কানতারা কে খান বলেন, বঙ্গবন্ধু, বাংলাদেশ, মুক্তিযুদ্ধ তিনটি শব্দ, একটি অর্থ। তাই বাংলাদেশকে জানতে হলে বঙ্গবন্ধুকে ও মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস জানতে হবে। 

আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে ছিলেন বঙ্গবন্ধু কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রভাষক সাব্বির আহমেদ। তিনি বঙ্গবন্ধু ও স্বাধীনতা যুদ্ধের সময়কালীন নানা ঘটনা তুলে ধরেন।

অনুষ্ঠানে আরও ছিলেন যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা মোজাম্মেল হক নিয়াজী। তিনি বঙ্গবন্ধুর সঙ্গে স্মৃতিচারণ  ও মুক্তিযুদ্ধের দিনগুলোর কথা ছাত্রছাত্রীদের জানান।

হযরত শাহ আলী (র.) হাই স্কুলের সহকারী প্রধান শিক্ষক এ রঞ্জন চক্রবর্তীর বক্তব্য এ কার্যক্রমের সূচনা হয়। পরে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষণা করেন আজ সারাবেলার সম্পাদক জববার হোসেন।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, কার্যক্রমের সমন্বয়ক রবিউল ইসলাম রবি, শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ। কার্যক্রমের সার্বিক সহযোগিতায় ছিল নীলসাগর গ্রুপ।

0 মন্তব্য(গুলি)

Write Down Your Responses

Related Posts Plugin for WordPress, Blogger...