ভবিষ্যৎ নেতৃত্বের জন্য প্রয়োজন ডাকসু নির্বাচন : রাষ্ট্রপতি

ভবিষ্যৎ নেতৃত্বের জন্য ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) নির্বাচন প্রয়োজন বলে মনে করেন রাষ্ট্রপতি ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য মো. আবদুল হামিদ।

শনিবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শারীরিক শিক্ষা কেন্দ্রের খেলার মাঠে বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫০তম সমাবর্তন অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

এর আগে বেলা সাড়ে ১১টায় জাতীয় সংগীত পরিবেশনের মাধ্যমে সমাবর্তন অনুষ্ঠান শুরু হয়।

এরপর ধর্মগ্রন্থ থেকে পাঠ শেষে সমাবর্তন বক্তা কানাডার ইউনিভার্সিটি অব ওয়েস্টার্ন অন্টারিও-এর প্রেসিডেন্ট এবং ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক অমিত চাকমাকে সম্মানসূচক ড. অব সায়েন্স ডিগ্রি প্রদান করা হয়।

রাষ্ট্রপতি বলেন, বর্তমানে বেশিরভাগ ছাত্রনেতার বয়স ৪৫ থেকে ৫০ বছর। তারা বিশ্ববিদ্যালয়ের নতুন ছাত্রদের কাছে মিশতে পারে না, তাই ডাকসুর মাধ্যমে নেতা নির্বাচন করতে হবে। আর তা না হলে ভবিষ্যতে দেশ নেতৃত্ব শূন্য হয়ে যাবে।       

সভাপতির বক্তব্য প্রদানের পূর্বে রাষ্ট্রপতি বিভিন্ন অনুষদের ডিনদের সুপারিশে ৬১জনকে পিএইচডি, ৪৩জনকে এমফিল এবং ১৭ হাজার ৮৭৫জনকে গ্র্যাজুয়েট হিসেবে স্বীকৃতি দেন। এরপর ৯৪টি স্বর্ণপদকের জন্য মনোনীত ৮০জনকে পদক প্রদান করেন।

পদক প্রদানের পর বক্তব্য দেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক, সমাবর্তন বক্তা অধ্যাপক অমিত চাকমা। ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ড. নাসরিন আহমেদ।

0 মন্তব্য(গুলি)

Write Down Your Responses

Related Posts Plugin for WordPress, Blogger...