ময়মনসিংহে শিশুকে ধর্ষণ ও হত্যার দায়ে একজনের মৃত্যুদণ্ড

ময়মনসিংহের চুরখাই এলাকার শিশু সোনিয়া আক্তারকে (৭) ধর্ষণ ও হত্যার দায়ে রফিকুল ইসলাম কাজল নামে এক ব্যক্তির মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেছেন আদালত। এছাড়াও তাকে এক লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক (জেলা ও দায়রা জজ) মো. হেলাল উদ্দিন এ রায় দেন।

রায়ের বিবরণে জানা যায়, ময়মনসিংহ সদর উপজেলার চুরখাই দড়িভাবখালী গ্রামের পত্রিকার হকার চাঁন মিয়া প্রতিদিনের মতো ২০১২ সালের ২৩ জুন সকালে বাড়ি থেকে শহরের উদ্দেশ্যে বেরিয়ে যান। পরে বিকেলে বাড়ি ফিরে সোনিয়াকে না পেয়ে অনেক খোঁজাখুঁজি করেন। পরেরদিন সকালে পাশের সুতিয়াখালি নামাপাড়া গ্রামের একটি পুকুরের পাশের জঙ্গল থেকে সোনিয়ার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

প্রত্যক্ষদর্শী ও চাঁন মিয়ার আত্মীয় ওই গ্রামের রিপা আক্তারসহ কয়েকজন শিশুকন্যা সোনিয়া আক্তারকে সকালে একই গ্রামের আবু বক্কর সিদ্দিকের ছেলে রফিকুল ইসলাম কাজলের সঙ্গে যেতে দেখেন।

তাদের ধারণা, রফিকুল ইসলাম কাজল শিশুকন্যা সোনিয়াকে প্রলোভন দেখিয়ে জঙ্গলে নিয়ে ধর্ষণের পর বাঁশের টুকরা দিয়ে মাথায় ও কপালে আঘাত করে হত্যা করে মরদেহ ফেলে পালিয়ে যায়।

এ ঘটনায় শিশুর বাবা বাদী হয়ে রফিকুল ইসলাম কাজলকে আসামি করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। পরে আটজনের সাক্ষ্য-প্রমাণ শেষে আদালতের বিজ্ঞ বিচারক এ রায় দেন।

0 মন্তব্য(গুলি)

Write Down Your Responses

Related Posts Plugin for WordPress, Blogger...