ভুল ট্রেনে উঠে ধর্ষিত কিশোরী

ভুল ট্রেনে উঠে অপহরণের পর ধর্ষণের শিকার হয়েছে এক কিশোরী। শুধু তাই নয়, পরে তাকে বিক্রি করে দেয়া হয়েছে।
নয়াদিল্লির বাদশা হুমায়ূনের সমাধিস্থলের কাছ থেকে তাকে উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে দু'জনকে আটক করেছে পুলিশ। খবর এনডিটিভির।

ভারতের ছত্তিশগড় থেকে ভুল করে দিল্লিগামী ট্রেনে উঠে পড়েছিল ওই কিশোরী। সেখানে এক নারীর সহযোগিতায় তাকে অপহরণের পর ধর্ষণ করে দুর্বৃত্তরা। পরে তাকে দালালের হাতে বিক্রি করে দেয়া হয়।

দিল্লির এক পুলিশ কর্মকর্তা জানান, গত বছরের অক্টোবরে কিশোরীটি তার এক আত্মীয়ের বাড়ি যাওয়ার জন্য ভুল ট্রেনে উঠে বসে।

ট্রেন থেকে নামার পর নিজেকে হযরত নিজামুদ্দিন রেলস্টেশনে আবিষ্কার করে নিজেকে।

সেখানে সাহায্য চাইতে গিয়ে আরমান নামে এক পানীয় বিক্রেতার খপ্পরে পরে ওই কিশোরী। তাকে অচেতন করার ওষুধ মিশ্রিত পানি পান করায় আরমানের স্ত্রী হাসিনা।

এরপর মো. আফরোজ নামে এক যুবকের কাছে তাকে তুলে দেন হাসিনা।

অচেতন অবস্থায় ওই যুবক তাকে কয়েক দফা ধর্ষণ করে। এরপর হাসিনা-আরমান দম্পতি তাকে পাপ্পু যাদব নামে এক ব্যক্তির কাছে ৭০ হাজার রুপিতে বিক্রি করে দেন।

সেখানে পাপ্পু তাকে দুই মাস আটকে রেখে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন চালিয়েছে। পরে সেখান থেকে কৌশলে পালিয়ে এসে এক পথচারীর সহায়তায় পুলিশকে ফোন করলে দিল্লি পুলিশ কিশোরীকে উদ্ধার করে।

তার অভিযোগের ভিত্তিতে আরমান ও আফরোজকে আটক করে পুলিশ।

0 মন্তব্য(গুলি)

Write Down Your Responses

Related Posts Plugin for WordPress, Blogger...