বরিশালে খাবারে বিষক্রিয়া : হাসপাতাল ছেড়েছে ৪৮ শিক্ষার্থী

খাদ্যে বিষক্রিয়ায় আক্রান্ত বরিশাল সদর উপজেলার চরবাড়িয়া এলাকার উলালঘুনি ইসলামীয়া নূরানী হাফেজিয়া মাদরাসা ও এতিমখানার ৫১ জন ছাত্রের মধ্যে সুস্থ হয়ে ৪৮ জন ছাত্র হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফিরেছে।
 
বুধবার দুপুর ১২টার দিকে গিয়ে দেখা যায় ৩ জন ছাত্র বরিশাল জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে। এদের অবস্থা বর্তমানে আশংকামুক্ত বলে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন। বাকি ৪৮ ছাত্র সুস্থ হয়ে সকালে বাড়ি ফিরে গেছে। 

এর আগে মঙ্গলবার দুপুরে ইসলামীয়া নূরানী হাফেজিয়া মাদরাসা ও এতিমখানার শিক্ষার্থীরা দুপুরের খাবার খেয়ে অসুস্থ হয়ে পড়ে। রাতে ৫১ জনকে বরিশাল জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

মাদরাসার পরিচালনা কমিটির সভাপতি আনোয়ার হোসেন জানান, মঙ্গলবার দুপুরে খাদ্য তালিকায় ছিল লাউ ও পাতলা ডাল। বিকেলে আছরের নামাজের জন্য ওজু করতে গিয়ে দেখি মাদরাসার দুটি টয়লেটের সামনেই ১৬-১৭ জন ছাত্র লাইন দিয়ে দাঁড়িয়ে আছে। কে টয়লেটে আগে যাবে এ নিয়ে হুড়োহুড়ি। বিষয়টি সন্দেহ হলে তাদের কাছে জানতে চাওয়া হয় কোনো সমস্যা কি না। এ সময় ছাত্ররা জানায় পেট খারাপ হয়েছে।

তিনি জাগো নিউজকে আরো জানান, সন্ধ্যায় মাগরিবের নামাজের সময় মসজিদে অনেক ছাত্রকে অনুপস্থিত দেখে সন্দেহ হয়। খোঁজ নিতে গিয়ে দেখি হেফজ বিভাগ, নূরানী ও নজরা বিভাগের অনেক ছাত্রই অসুস্থ। এদের মধ্যে অনেকে পেটে ব্যথায় চিৎকার করছে। হেফজ বিভাগের শিক্ষক হাফেজ জহিরুল ইসলামও অসুস্থ হয়েছেন। 

পরে স্থানীয়দের সহায়তায় ৫১ ছাত্রকে সদর হাসপাতালের ডায়রিয়া ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়। অনেককে আবার তাদের অভিভাবকরা এসে বাসায় নিয়ে গেছেন। মাদরাসাটিতে তিনটি বিভাগে মোট ১২০ জন ছাত্র পড়াশুনা করছে। এদের মধ্যে ৬৫ জন আবাসিক ছাত্র। 

বরিশাল জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ও বরিশাল জেলার সিভিল সার্জন ডা. এএফএম শফিউদ্দিন আহমেদ বলেন, খাদ্যে বিষক্রিয়ায় মাদরাসা ও এতিমখানার ৫১ জন ছাত্রের মধ্যে সুস্থ হয়ে ৪৮ জন ছাত্র হাসপাতাল থেকে সকালে বাড়ি ফিরে গেছে। বর্তমানে ৩ জন ছাত্র বরিশাল জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে। এদের অবস্থা আশঙ্কামুক্ত বলে জানিয়েছেন তিনি।

জেলা প্রশাসক ড. গাজী সাইফুজ্জামান জানান, কেন এমন অবস্থা হল, তা জানতে অতিরিক্ত

0 মন্তব্য(গুলি)

Write Down Your Responses

Related Posts Plugin for WordPress, Blogger...