বেঙ্গালুরুতে বর্ষবরণের রাতে গণশ্লীলতাহানির এক সপ্তাহের মাথায় শহরটিতে আবারো এক নারী যৌননিপীড়নের শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। 

এনডিটিভি এক প্রতিবেদনে বলছে, উত্তর বেঙ্গালুরুর কেজি আবাসিক এলাকায় এক নারী তার কর্মক্ষেত্রে যাওয়ার সময় হয়রানির শিকার হয়েছেন। শুক্রবার সকালে বোরকা পরিহিত ওই নারীর ওপর যৌননিপীড়ন চালিয়েছে এক ব্যক্তি। 

ওই ব্যক্তি তাকে অনুসরণ করছিলেন; কেজি এলাকায় পৌঁছালে তাকে মাটিতে ফেলে দেন হামলাকারী। এ সময় ওই নারী সাহায্যের জন্য চিৎকার করেছিলেন। এ ঘটনায় ওই নারী তার পা, কাঁধ ও জিহ্বায় ব্যথা পেয়েছেন। 

নারীর আর্তনাদ শুনে বেওয়ারিশ একটি কুকুর ঘেউঘেউ করে। পরে স্থানীয়রা ঘটনাস্থলে পৌঁছে তাকে (নারী) উদ্ধারের পর হাসপাতালে নিয়ে যান। পুলিশ বলছে, সন্দেহভাজনকে ধরতে অভিযান শুরু হয়েছে। 

এর আগে গত ৩১ ডিসেম্বর বর্ষবরণের রাতে বেঙ্গালুরুর প্রাণকেন্দ্র এমজি রোডে গণ-যৌন নিপীড়নের ঘটনা ঘটে। এ সময় দেড় হাজার পুলিশ মোতায়েন থাকলেও সেই সময় পুলিশের ভূমিকা নিয়ে সমালোচনা শুরু হয়েছে। তবে রাজ্যের শীর্ষস্থানীয় এক পুলিশ কর্মকর্তা বলেছেন, যৌন হয়রানির অভিযোগের কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি। 

একই রাতে বেঙ্গালুরুর অন্য প্রান্তে আবারো নিপীড়নের শিকার হন এক তরুণী। এ ঘটনার একটি ভিডিও চিত্র ছড়িয়ে পড়ে অনলাইনে। এতে দেখা যায়, অটো থেকে নেমে এক তরুণী হেঁটে বাড়ির দিকে যাচ্ছিলেন। এ সময় বিপরীত দিক থেকে আসা দুই স্কুটার আরোহী তার পথরোধ করে। এরপর এক তরুণ স্কুটার থেকে নেমে ওই তরুণীকে জড়িয়ে ধরে রাস্তা থেকে স্কুটারের কাছে নিয়ে যায়।

পরে স্কুটারে বসে থাকা অপর তরুণ শ্লীলতাহানিতে যোগ দেয়। শেষে ধাক্কা মেরে রাস্তায় ফেলে দেয়া হয় ওই তরুণীকে। রোববার রাত আড়াইটার দিকে এ ঘটনা ঘটে। এর রেশ কাটতে না কাটতেই শুক্রবার আবারো যৌননিপীড়নের শিকার হলেন এক মুসলিম নারী। 

0 মন্তব্য(গুলি)

Write Down Your Responses

Related Posts Plugin for WordPress, Blogger...