আলিয়ঁসে চলছে ঢাকা মেট্রো রেল নিয়ে নকশা প্রদর্শনী

আলিয়ঁস ফ্রঁসেজ দো ঢাকার লা গ্যালারিতে শুরু হয়েছে ‌‘লাইফ লাইন ফর ঢাকা’ শীর্ষক ঢাকার আগামী মেট্রো রেল স্টেশন প্রকল্পের নকশা বিষয়ক প্রদর্শনী। এটি আয়োজন করেছে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) স্থাপত্য বিভাগ। 

গতকাল শুক্রবার, ৬ই জানুয়ারি বিকেল ৫টায় আলিয়ঁস ফ্রঁসেজ দো ঢাকায় এর উদ্বোধন করা হয়। সেখানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ম্যাস ট্রানজিট কোম্পানি লিমিটেডের পরিচালক মো. কায়কোবাদ হোসেন। আলিয়ঁস ফ্রঁসেজ দো ঢাকার পরিচালক জনাব ব্রুনো প্লাস অতিথিদের স্বাগত জানান এবং অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন স্থাপত্য বিভগের অধ্যাপক ড. ফরিদা নিলুফার।

এছাড়া প্রদর্শনীর শেষদিনে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থাকবেন সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রনালয়ের মাননীয় সচিব এম. এ. এন. সিদ্দিক।

প্রদর্শনীটি সম্পর্কে শিল্পীদের পক্ষ থেকে বলা হয়, ‘বর্তমান বিশ্বের সম্ভাবনাময় শহরগুলোর মধ্যে অন্যতম ঢাকা। উন্নয়নের জোয়ারে গা ভাসিয়ে যেন এই ছোট তরীটি স্বতঃস্ফূর্ত ভাবে এগিয়ে চলেছে প্রতিনিয়ত। আগামী দশকে তারই এক নিদর্শন রূপে আমরা দেখতে পাবো মেট্রো রেল পরিকল্পনা। সরকারি তৎপরতায় এবং আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠান জাইকার সহায়তায় শীঘ্রই নগরজুড়ে শুরু হতে যাচ্ছে মেট্রোরেল নির্মাণের কাজ।’

আশা করা হচ্ছে ২০২৩ সালের মধ্যেই এর প্রথম নির্মাণ পর্ব সম্পন্ন হবে। এবং ২০৩৫ সালের মধ্যেই নগরবাসী উপভোগ করবে মেট্রো রেল সুবিধা। 

কিন্তু কেমন হবে আসলে এই মেট্রো রেল? প্রতিদিনের কর্মব্যস্ত যাত্রাপথে সত্যিই কি একটু স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলতে পারবে নগরবাসী? শহরের বুক চিরে এগিয়ে যাবে যে মেট্রো লাইন, শহরবাসীর প্রতিদিনের অপরিহার্য অংশ হয়ে উঠবে যে স্টেশনগুলি, কেমন হচ্ছে সেগুলোর নকশা? কিভাবে তা শহরের সার্বিক পরিবেশের সাথে সমন্বয় করবে? জনসাধরণের প্রবেশগম্যতা কিভাবে নির্ধারিত হবে? এ সকল প্রশ্নের উত্তরের সন্ধানে একটি উদ্যোগ নেয় বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) স্থাপত্য বিভাগের ৪র্থ বর্ষের শিক্ষার্থীরা। সরকারের চলতি প্রোজেক্টেরই একাংশ অর্থাৎ ৪টি স্থানের (ফার্মগেট, মতিঝিল, মিরপুর, শাহবাগ) স্টেশন নিয়ে সৃজনশীল প্রস্তাব প্রণয়ন করে শিক্ষার্থীরা। সকলের কাছে চলতি প্রকল্প এবং এর নগর উন্নয়নের অনুন্মোচিত সম্ভাবনাগুলো তুলে ধরাই প্রদর্শনীর মুল উদ্দেশ্য। 

প্রদর্শনীটি চলবে ১০ জানুয়ারি পর্যন্ত। শুক্রবার ও শনিবার সকাল ৯টা থেকে দুপুর ১২টা এবং বিকাল ৫টা থেকে রাত ৮টা এবং সোমবার ও মঙ্গলবার বিকাল ৩টা থেকে রাত ৯টা এবং পর্যন্ত প্রদর্শনীটি খোলা থাকবে। রোববার সাপ্তাহিক বন্ধ। প্রদর্শনীটি সবার জন্য উন্মুক্ত।

0 মন্তব্য(গুলি)

Write Down Your Responses

Related Posts Plugin for WordPress, Blogger...