মিষ্টি খেতে মিলন-নাবিলার দাওয়াত

বরিশালের ছেলে আরিফ ঢাকায় এসেছে বড় চাচার বাসায়। গত বছর সে চাচার কাছ থেকে পাঁচ হাজার টাকা ধার নিয়েছিল। সেই টাকা দিয়ে গ্রামে মুরগীর খামার করে। পাঁচ হাজার টাকা তার জীবন বদলে দিয়েছে। 

চাচার বাসায় এসেছে চাচাকে খুশির খবর দিতে। গ্রাম থেকে দুই কেজি মিষ্টি এনেছে। সবাইকে সে খুশির মিষ্টি ভাগ করে দিতে চায়।

কিন্তু আরিফ দেখল চাচার বাসায় কেউ খুশি না। সবাই কোনো না কোনো কারণে অখুশি। চাচা বিরক্ত কারণ তার অফিসে খুব বড় এক কেলেংকারি হয়েছে। কিন্তু  তিনি কিভাবে সেটা সমাধান করবে তা বের করতে পারছেন না। চাচি বিরক্ত কারণ তার শাড়ি গয়না ম্যাচিং কোথায় কিভাবে করবেন তা নিয়ে তিনি সংশয়ে। 

চাচার এক মাত্র মেয়ের মন খারাপের কারণ কার বান্ধবীর নতুন প্রেম হয়েছে। বান্ধবীর প্রেম হয়েছে বলে তার কেন মন খারপ হবে সেটা আরিফ কোনোভাবেই বুঝতে পারছে না। ওদিকে চাচাতো ভাইয়েরও মন খারাপ। 

তবে তার কারণটা আরিফ বের করতে পারছেনা। তার নাকি ইদানিং মরে যেতে ইচ্ছা করে, মরে যাবার আগে সে ইচ্ছে মত খেয়ে নিচ্ছে। খেতে খেতে ফুটবলের মত গোল হয়ে গেছে। এই বাসার দারোয়ান বুয়ারও মন খারাপ। তারাও কেউ মিষ্টি খেতে চায় না।

আরিফের একসময় মনে হয় এই পুরো ঢাকা শহরটাই মন খারাপের শহর। সবাই মন খারাপ করে থাকে। এর চেয়ে তার গ্রাম কত ভালো, সারাদির সবাই কত আনন্দ করে। আরিফ সিদ্ধান্ত নেয় চাচার বাসার মন ভালো করে, দুই কেজি মিষ্টি পুরোটা শেষ করে তবেই ঢাকা ছাড়বে। 

শুরু হয় আরিফের অন্যরকম এক পথ চলা। কিন্তু পদে পদে নতুন নতুন সমস্যা ঘিরে ধরে আরিফকে। মন খারাপের শহরে শেষ পর্যন্ত কি আরিফ পারবে তার মিষ্টিগুলো খাওয়াতে, তা জানার জন্য চোখ রাখতে হবে আরটিভির পর্দায় ‘আসেন মিষ্টি খাই’ নামের নাটকে। 

ডাবর আমলা নিবেদিত ‘মানডে নাইট সুপার ড্রামা’র এই সপ্তাহের আয়োজনে থাকছে এই নাটক। মারুফ রেহমানের রচনা এবং সহিদ-উন-নবীর পরিচালনায় নির্মিত নাটকটি প্রচারিত হবে আগামীকাল সোমবার (২৩ জানুয়ারি) রাত ৮টা ১০ মিনিটে। 

টম ক্রিয়েশনস প্রযোজিত নাটকটিতে আরিফ চরিত্রে দেখা যাবে আনিসুর রহমান মিলনকে। এছাড়াও বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন নাবিলা ইসলাম, মনিরা মিঠু, কাজী উজ্জল, নীলা ইসরাফীল এবং আরও অনেকে।

0 মন্তব্য(গুলি)

Write Down Your Responses

Related Posts Plugin for WordPress, Blogger...