দিন শেষে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৩ উইকেটে ১৫৪

কনকনে হিম ঠাণ্ডার সঙ্গে শোঁ শোঁ বাতাসেই ভোর হয়েছিল ওয়েলিংটনে। আবহাওয়ার পূর্বাভাষও ছিল সকালে না হলে দুপুরে বৃষ্টি আসতে পারে। আর ধারণা অনুযায়ীই বৃষ্টি আঘাতে নিউজিল্যান্ড-বাংলাদেশের প্রথম টেস্টের প্রথম দিনের খেলা হলো মাত্র ৪০.২ ওভার। আর তাতে ৩ উইকেট হারিয়ে ১৫৪ রান সংগ্রহ করেছে টাইগাররা।

বুধবার বেসিন রিসার্ভ স্টেডিয়ামে টস হেরে প্রথমে ব্যাটিংয়ে নামে বাংলাদেশ। আর শুরুতেই ইমরুল কায়েসের (১) উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে তারা। টিম সাউদির কাঁধ সমান উঁচু বলে হুক করতে গিয়ে স্কোয়ারিশ লং লেগে ক্যাচ তুলে দেন ইমরুল। আর সে ক্যাচ সহজেই তালুবন্দি করেন ট্রেন্ট বোল্ট।

ইমরুলের বিদায়ের পর টেস্ট স্পেশালিষ্ট মুমিনুল হককে নিয়ে দলের হাল ধরেন তামিম ইকবাল। ধীর গতিতে এগিয়ে যেতে থাকেন এ দুই ব্যাটসম্যান। তবে ১১.৩ ওভার পর বৃষ্টি নামলে সাময়িকভাবে খেলা বন্ধ হয়ে যায়।

প্রায় দেড় ঘণ্টা পর বৃষ্টির তাণ্ডব শেষ হলে আবার খেলা শুরু হয়। তবে এবার বেনে শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক খেলতে থাকেন তামিম। মাত্র ৪৮ বলেই তুলে নেন ক্যারিয়ারের ২০তম হাফসেঞ্চুরি। তবে হাফসেঞ্চুরি করার পর বেশিক্ষণ থাকতে পারেননি তিনি। ৫০ বল মোকাবেলা করে ব্যক্তিগত ৫৬ রানে বিদায় নেন এ ড্যাশিং ওপেনার। 

বোল্টের একটু ভেতরে ঢোকা বলে লাইন মিস করলে তামিমের পায়ে লাগে। আম্পায়ার স্বাগতিকদেরজোরালো আবেদনে সাড়া না দিলে রিভিউ নেন কেন উইলিয়ামসন। রিপ্লেতে দেখা যায়, বল অফ স্টাম্পের উপরের দিকে আঘাত হানতো। সিদ্ধান্ত পাল্টে এবার তামিমকে আউট দেন আম্পায়ার।

দুই ওপেনারের বিদায়ের পর মুমিনুল হক ও মাহমুদউল্লাহর ব্যাটে প্রতিরোধ গড়ে বাংলাদেশ। গড়ে তোলে অর্ধশত রানের জুটি। তবে এরপর আবার বাগড়া দেয় বৃষ্টি। ফলে খেলা আবারো বন্ধ হয়ে যায়। এ সময়ের বাংলাদেশের সংগ্রহ ছিল ২ উইকেট হারিয়ে বাংলাদেশের সংগ্রহ ১১৯ রান।

প্রায় তিন ঘণ্টা বন্ধ থাকার পর বৃষ্টি শেষে আবার খেলা শুরু হয়। তবে দলীয় স্কোরবোর্ডে আর ২৬ রান যোগ করতেই নেইল ওয়াগনারের বলে সাজঘরে ফিরে যান মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। অফষ্ট্যাম্পের অনেক বাইরে থাকা বল অনেকটা ব্যাটসম্যানের মত খোঁচা মারতে গিয়ে গিয়ে উইকেটরক্ষকের হাতে ধরা পড়েন তিনি।

মাহমুদউল্লাহর বিদায়ের পর উইকেটে আসেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। তবে আর১৩ বল করার পরই আলোক স্বল্পতায় খেলা বন্ধ হয়ে যায়। এরপর মাঠের পরিস্থিতি ঠিক না হলেদিনের খেলা সেখানেই শেষ হয়। এ সময় বাংলাদেশ দলের সংগ্রহ ৩ উইকেটে ১৫৪ রান। ক্যারিয়ারের১১তম হাফসেঞ্চুরি তুলে মুমিনুল অপরাজিত আছেন ৬৪ রানে। আর সাকিব অপরাজিত রয়েছেন ৫রানে।

,

0 মন্তব্য(গুলি)

Write Down Your Responses

Related Posts Plugin for WordPress, Blogger...