এবার মেয়ের মৃতদেহ কাঁধে নিয়ে ১৫ কিলোমিটার হাঁটলেন বাবা

গত বছর উড়িষ্যায় স্ত্রীর লাশ কাঁধে নিয়ে দানা মাঝি নামের এক ব্যক্তি ১০ কিলোমিটার হেঁটে বাড়ি পৌঁছানোর ঘটনায় উত্তাল হয়ে উঠেছিল পুরো ভারত। অ্যাম্বুলেন্স না পেয়ে স্ত্রী আমাঙ্গ দেবীর মৃতদেহ কাঁধে ১২ কিলোমিটার হাঁটতে হয়েছিল তাকে। এবার সামনে এসেছে সেরকমই এক মর্মান্তিক ঘটনা। যেখানে পাঁচ বছরের মেয়ের মৃতদেহ কাঁধে ১৫ কিলোমিটার রাস্তা হাঁটতে হল গাতি ধীবর নামে এক ব্যক্তিকে। 

ভারতীয় গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, জ্বর হওয়ায় মেয়ে সুমি ধীবরকে আঙ্গুল জেলার পাল্লাহারা কমিউনিটি স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভর্তি করেছিলেন গাতি। কিন্তু ভর্তির পরদিনেই মারা যায় সুমি। এরপরেই হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ মৃতদেহের দায়িত্ব নিতে অস্বীকার করে। 

শ্মশানে নিয়ে যাওয়ার জন্য দেয়া হয়নি কোনো অ্যাম্বুলেন্স। রাজ্যে বিনামূল্যে শববাহী যানের সেবা চালু থাকলেও সেকথা জানতেন না ওই ব্যক্তি। তাই নিরুপায় হয়ে মেয়ের মৃতদেহ নিয়ে হাঁটতে শুরু করেন বাবা। ঘটনাটি সামনে আসার পরেই আবারো প্রশ্নের মুখে পড়েছে উরিষ্যা সরকার। 

মেয়ের মৃতদেহ নিয়ে বাবার হাঁটার ভিডিওটি সামনে আসার পরেই সোশ্যাল মিডিয়ায় সেটি ভাইরাল হয়ে গেছে। অনেকেই সরকারের পাশাপাশি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সমালোচনায় মুখর। ঘটনার কথা জানতে পেরে ওই স্বাস্থ্য কেন্দ্রের এক নিরাপত্তারক্ষী এবং জুনিয়র ম্যানেজারকে বরখাস্ত করেছেন জেলা প্রশাসক।

0 মন্তব্য(গুলি)

Write Down Your Responses

Related Posts Plugin for WordPress, Blogger...