‘সাম্প্রদায়িক দাঙ্গায় দেশের স্বাধীনতা ভূলুণ্ঠিত হচ্ছে’

সাম্প্রদায়িক দাঙ্গার কারণে দেশের স্বাধীনতা ভূলুণ্ঠিত হচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) শিক্ষকেরা।

নাসিরনগরসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে সাম্প্রদায়িক হামলার প্রতিবাদে সোমবার বেলা ১১টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট ভবনের সামনে আয়োজিত মানববন্ধনে বক্তারা এ কথা বলেন। বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি এ কর্মসূচির আয়োজন করে।

মানববন্ধনে রাবি শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক শহীদুল্লাহ্ বলেন, বাংলাদেশ রাষ্ট্রের ভিত্তি হলো একটি অসাম্প্রদায়িক চেতনা। এ চেতনার ওপর যে আঘাত করে সে আমাদের শত্রু। তিনি যে রাজনৈতিক মতাদর্শেরই হোক। সরকারের কাছে এসকল হামলায় জড়িতদের শাস্তি দাবি করেন তিনি।

রাবি শিক্ষক সমিতির সধারণ সম্পাদক অধ্যাপক শাহ্ আজম বলেন, সকল শ্রেণি-পেশার মানুষের পথচলায়, অংশগ্রহণে এদেশ স্বাধীন হয়েছে। দেশের পতাকা বীরদর্পে উড়াতে পেরেছি। কিন্তু বাঙালি সংস্কৃতি বিলুপ্ত করার চক্রান্ত চলছে। সময় এসেছে রুখে দাঁড়াবার। এখন যদি সোচ্চার হতে না পারি তাহলে বাঙালি সংস্কৃতি বিলুপ্ত হতে বাধ্য। এসব সাম্প্রদায়িক দাঙ্গায় দেশের স্বাধীনতা ভূলুণ্ঠিত হচ্ছে বলেও তিনি মন্তব্য করেন।

সমাজবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক এ এইচ এম মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, নাসিরনগরে আমাদের দুর্বল, অসহায় ভাইদের ওপর হামলা হয়েছে, সংখ্যালঘুদের ওপর নয়। কারণ তারা নিজেদের সংখ্যালঘু মনে করেন না। সংখ্যালঘু ও সংখ্যাগুরু আমাদের সৃষ্টি। এখন যদি এই মতাদর্শের ভিত্তিতে ভারতে কোনও মুসলমান পল্লিতে হামলা চালানো হয়...! আসুন আমরা সোচ্চার হই।’ সুষ্ঠু তদন্ত করে বিচার দাবি করেন তিনি।

ভূতত্ত্ব ও খনিবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক গোলাম সাব্বির সাত্তার বলেন, যখন কোনও ঘটনা ঘটে তখন আমরা নিজেরাই নিজেদের প্রতিপক্ষ ভাবি। তিনি হিন্দু, তিনি মুসলমান এভাবে। আসুন আমরা আমাদের মন-মানসিকতা প্রসস্থ করি। এ রকম হামলার ঘটনার প্রতিবাদ নয়, প্রতিহত করতে হবে।

মানববন্ধনে আরও বক্তব্য দেন মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও মূল্যবোধে বিশ্বাসী প্রগতিশীল শিক্ষক সমাজের আহ্বায়ক অধ্যাপক রকীব আহমদ, প্রাণিবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক আনন্দ কুমার সাহা ও দর্শন বিভাগের অধ্যাপক এস এম আবু বকর।

0 মন্তব্য(গুলি)

Write Down Your Responses

Related Posts Plugin for WordPress, Blogger...