পল্লী সঞ্চয় ব্যাংকে একসঙ্গে চলবে ব্যাংকিং ও প্রকল্প

পল্লী সঞ্চয় ব্যাংকে ব্যাংকিং ও একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্পের কার্যক্রম একই সঙ্গে চালিয়ে নেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। এ জন্য পল্লী সঞ্চয় ব্যাংক আইন-২০১৪ সংশোধন করা হয়েছে।

সোমবার সচিবালয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকে ‘পল্লী সঞ্চয় ব্যাংক (সংশোধন) অধ্যাদেশ ২০১৬’ এর খসড়ায় চূড়ান্ত অনুমোদন দেয়া হয়েছে।

সংশোধনীতে সরকারের একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্পের মেয়াদ আরো বাড়ানোর প্রস্তাব করা হয়। চলতি বছর ৩০ জুন এই প্রকল্পের মেয়াদ শেষে প্রকল্পটি পল্লী সঞ্চয় ব্যাংকের অধিভুক্ত হওয়ার কথা ছিল। নতুন করে সংশোধনীর ফলে এখন সরকার যখন নির্ধারণ করবেন, তখনই প্রকল্পটি ব্যাংকের আওতায় চলে আসবে।

বৈঠক শেষে সংবাদ সম্মেলনে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম বলেন, সরকারের একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্প এবং পল্লী সঞ্চয় ব্যাংক ঘনিষ্ঠভাবে জড়িত। প্রকল্পের থেকেই ২০১৪ সালে পল্লী সঞ্চয় ব্যাংক প্রতিষ্ঠা করে সরকার।

ব্যাংকের অধ্যাদেশে বলা ছিল যে, একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্পটি ২০১৬ সালের ৩০ জুন থেকে এই ব্যাংকের অধিভুক্ত হয়ে যাবে। কিন্তু সে প্রস্তুতি সম্পন্ন করা সম্ভব হয়নি, তাই সময়ের বাধা উঠিয়ে ফেলা হয়েছে। সরকার কর্তৃক নির্ধারিত সময়ে প্রকল্পটি পল্লী সঞ্চয় ব্যাংকের অধিভুক্ত হয়ে যাবে বলে জানান তিনি।

মূলত পল্লী সঞ্চয় ব্যাংক ও একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্প একই সঙ্গে চালিয়ে নেয়ার জন্যই আইনটি পরিবর্তনের প্রয়োজন হয়েছে। যেহেতু বর্তমানে সংসদ অধিবেশন নেই, তাই এটি অধ্যাদেশ আকারে জারি করা হবে।

প্রসঙ্গত, আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন সরকার ১৯৯৬ সালে একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্প শুরু করে। পরবর্তীতে বিএনপি-জামায়াত জোট ক্ষমতায় এসে তা বন্ধ করে দেয়। পরবর্তীতে ২০০৯ সালে আওয়ামী লীগ আবার ক্ষমতায় এলে প্রকল্পটি আবার শুরু হয়। ২০১৪ সালের ৩১ আগস্ট পল্লী সঞ্চয় ব্যাংক প্রতিষ্ঠা করা হয়। সারা দেশের ৬৪টি জেলার ৪০ হাজার ৫২৭টি গ্রামে এই প্রকল্পের কার্যক্রম চলে আসছে।

এদিকে, রাসায়নিক সারের বদলে জৈব সারের ব্যবহার বাড়াতে জাতীয় জৈব কৃষি নীতি ২০১৬-এর খসড়ার অনুমোদন দেয়া হয় মন্ত্রিসভায়। ২০১৩ সালের কৃষি নীতির আদলেই জৈব কৃষি নীতি করা হয়েছে বলে জানান সচিব।

0 মন্তব্য(গুলি)

Write Down Your Responses

Related Posts Plugin for WordPress, Blogger...