পুনঃপ্রচারের বৃত্তে সুলতান সুলেমানের দর্শক

বেসরকারি টিভি চ্যানেল দীপ্ত টিভিতে প্রচার হওয়া তুমুল জনপ্রিয় বিদেশি সিরিয়াল ‘সুলতান সুলেমান’। অটোম্যান সাম্রাজ্যের রোমাঞ্চকর কাহিনি প্রতি শনি থেকে বৃহস্পতি সন্ধ্যা ৭টা ৩০ মিনিটে ও রাত ১০টায় নিয়মিতভাবেই প্রচার হচ্ছে চ্যানেলটিতে।

আগের দুই সিজনের জনপ্রিয়তায় বর্তমানে সিরিয়ালটির তৃতীয় সিজন চলছে। জানা গেছে, এই সপ্তাহের মধ্যেই প্রচার হবে ‘সুলতান সুলেমান’র সিজন-৩-এর শেষ পর্ব। আজ রোববার (৬ নভেম্বর) সুলতান সুলেমানের ২০০তম পর্ব প্রচার হবে। হতে পারে এই পর্বটিই সিরিয়ালটির শেষ পর্ব। যদি তাই হয়, তবে আগামীকাল সোমবার (৭ নভেম্বর) থেকে দীপ্ত টিভি পুনঃপ্রচার করবে এই সিজনের পর্বগুলো।

গেল বছরের ১৭ নভেম্বর থেকে পথ চলা শুরু করা চ্যানেলটি সম্প্রচারে আসার প্রথম দিন থেকেই প্রচার করে যাচ্ছে ‘সুলতান সুলেমান’। এই সিরিয়াল দিয়েই মূলত দীপ্ত টিভি আলোচনায় আসতে সক্ষম হয়েছে। তবে নতুন সিজনের অপেক্ষায় থাকা দর্শকদের খানিকটা বিরক্ত করেছে সিরিয়ালটির পুনঃপ্রচারের স্বভাব। পুনঃপ্রচারের আবর্তে বন্দি হয়ে পড়েছে ‘সুলতান সুলেমান’র দর্শক।

সাধারণত নানা কিস্তি বা সিজনে বিভক্ত কোনো সিরিয়াল প্রচারের সময় সেগুলো একটানাই প্রচার করা হয়। কখনো হয়তো দেখা গেছে, একটি সিজন শেষ হলে নতুন সিজন প্রচারের জন্য সপ্তাহকালের বিরতি থাকে। কিন্তু এই বিরতির মাঝখানে পুনঃপ্রচারের বিড়ম্বনা দর্শকদের পোহাতে হয়নি। ঠিক সেটাই হচ্ছে এখন দীপ্ত টিভিতে ‘সুলতান সুলেমান’র দর্শকদের বেলায়।

বেশিরভাগ চ্যানেলেই নানা অনুষ্ঠান, ধারাবাহিক নাটক বা সিরিয়াল পুনঃপ্রচার হয়ে থাকে। সেগুলো প্রচার হয় নতুন পর্ব প্রচারের পর কাছাকাছি কোনো সময়ে। কিন্তু ‘সুলতান সুলেমান’র বেলায় দেখা গেছে, একটি সিজন শেষ হওয়ার পর তারা সেটিই আবার পুনঃপ্রচার করতে থাকে। নতুন পর্বের অপেক্ষায় থাকা দর্শকেরা এই বিষয়টি নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।

দীপ্ত টিভির ফেসবুক পেজে মুনীরা জেসমিন নামে এক দর্শক লিখেছেন, ‘দীপ্ত টিভি সুলতান সুলেমানের জনপ্রিয়তাকে শক্তি হিসেবে ব্যবহার করছে। আমরা একটা সিজনের পর নতুন সিজনের পর্বগুলোর জন্য অপেক্ষায় থাকি। কিন্তু চ্যানেলটি পুরনো পর্বগুলোই প্রচার শুরু করে দেয়। দেখা পর্বগুলো দেখতে শুধু বিরক্ত লাগে। আর নতুন পর্ব প্রচার হওয়ার মাঝখানে বড় গ্যাপ চলে আসায় সিরিয়াল দেখার মনোযোগ নষ্ট হয়।’

সালাউদ্দিন বশীর নামে একজন লিখেছেন, ‘জনপ্রিয়তার সুযোগ নেয়া ঠিক নয়। যে দর্শকের জন্য দীপ্ত টিভি অল্প সময়েই আলোচনায় এসেছে অনুষ্ঠান পুনঃপ্রচারের চক্রে ফেলে তাদের ঠকানো উচিত নয়। আমরা চাই, নতুন সিজন শিগগিরই শুরু হোক। দীপ্ত যদি সিরিয়ালটি পুনঃপ্রচার করতেই চায়, তবে নতুন পর্ব প্রচারের দিনে অন্য কোনো সময় করুক। কিন্তু যারা আগের পর্বগুলো দেখেছেন, তাদের জন্য সেগুলো রিপিট দেখা বিরক্তিকর।’

এদিকে নাম প্রকাশে একজন অভিনেত্রী বললেন, ‘ভালো বিনোদন সবাই গ্রহণ করে। সুলতান সুলেমান আমাকেও বেশ মুগ্ধ করে। গল্পের গাঁথুনি, চোখ ধাঁধানো নির্মাণ অসাধারণ। কিন্তু সুলতান সুলেমান সিজন বাই সিজন রিপিট করার যে অভ্যাস দীপ্ত টিভির সেটা বিরক্তিকর। শুনেছি আগেরবারের মতো এবারেও সিজন-৩ পুনঃপ্রচার করা হবে। শুনেই বিরক্তি লাগছে। এতে করে দর্শকদের বিরক্ত করার পাশাপাশি চ্যানেলটি ঠকাচ্ছেনও। যে সময়টাতে নতুন পর্ব বা নতুন কোনো অনুষ্ঠান প্রচার করা যেতো, সেই সময়টাতে পুরনো জিনিস দেখানো হচ্ছে। দর্শকেরা নতুন কিছু না পেলেও দীপ্ত টিভি ঠিকই বিজ্ঞাপন দিয়ে মুনাফা বুঝে নিচ্ছে। অথচ পুনঃপ্রচার হওয়া সময়টাতে নতুন কোনো অনুষ্ঠান তৈরি করা যেতো, নতুন কোনো ধারাবাহিক তৈরি করা যেতো। এতে ইন্ডাস্ট্রির উৎপাদন বাড়তো, শিল্পী-কলাকুশলীদের কাজও বাড়তো।’

তবে বিষয়টিকে এতো নেতিবাচকভাবে নেয়ার কিছু নেই বলেই দাবি করলেন দীপ্ত টিভির সিইও উরফি আহমেদ। তিনি বলেন, ‘জনপ্রিয় সুলতান সুলেমান পুনঃপ্রচার করার চিন্তা কিন্তু আমাদের ব্যক্তিগত কোনো ভাবনা নয়। দর্শকদের অনুরোধেই আমরা একটি সিজন শেষ হলে নতুন সিজন প্রস্তুতের মাঝখানে পুরনো সিজনের পর্বগুলো পুনঃপ্রচার করে থাকি। দর্শকেরা ফেসবুকে দীপ্ত টিভি ও সুলতান সুলেমানের পেজে বারবার অনুরোধ করেন পুনঃপ্রচারের জন্য। অনেকেই হয়তো কাজের ব্যস্ততায় কিছু পর্ব মিস করে যান। আর আমাদের প্রচার হওয়া পর্বগুলো অনলাইনেও দেয়া হয় না। তাই অনেকে মিস করে যান। অনেকে আবার একটি সিজন একবার দেখে গল্পের সঙ্গে একাত্ম হতে পারেন না -তাই তারাও অনুরোধ করেন পুনঃপ্রচার করতে। দর্শক না চাইলে এই সিরিয়ালটির তিনটি সিজনই হয়তো প্রচার করা যেতো না। সেখানে পুনঃপ্রচার তো আরো পরের বিষয়।’

তিনি আরো জানান, সিজন-৩-এর পর্বগুলো পুনঃপ্রচারের ফাঁকে নতুন সিজনটি তৈরি করা হবে। সবকিছু ঠিক থাকলে নতুন বছরের প্রথম দিন অর্থাৎ ২০১৭ সালের ১ জানুয়ারি থেকে সুলতান সুলেমানের সিজন-৪-এর প্রচার শুরু হবে।

0 মন্তব্য(গুলি)

Write Down Your Responses

Related Posts Plugin for WordPress, Blogger...