এবার চ্যানেল আইতে আসছে নতুন বিদেশি সিরিয়াল

দেশীয় চ্যানেলগুলোতে বিদেশি সিরিয়াল প্রচার বন্ধ করার দাবি তুলেছে দেশীয় নির্মাতারা। তাদের সংগঠন ডিরেক্টর’স গিল্ড সেই দাবির নেতৃত্ব দিচ্ছে। তাদের সমর্থনে রয়েছে দেশীয় অনেক তারকারাও।

কিন্তু মানহীন নির্মাণের ভিড়ে অস্তিত্ব সংকটে থাকা চ্যানেলগুলো দর্শক ধরে রাখতে বিদেশি সিরিয়াল প্রচার করেই যাচ্ছে। শুধু তাই নয়, বেশ কিছু চ্যানেল আন্দোলনের মুখেই নতুন করে বিদেশি সিরিয়াল বাংলায় ডাবিং করে প্রচার শুরু করছেন।

এবারে বিখ্যাত টার্কিশ উপন্যাসিক হালিদ জিয়া ওসাকলিগিলের জনপ্রিয় উপন্যাস ‘আস্ক আই মেমনু’ অবলম্বনে ১৮৯৯ সালে নির্মিত টার্কিশ ধারাবাহিক ‘লুকানো ভালোবাসা’ প্রচার হতে যাচ্ছে চ্যানেল আইতে। বিশ্বের ৭৩টি দেশে প্রচার হওয়া এই সিরিয়ালটি অত্যন্ত জনপ্রিয়তা পায় দর্শকদের কাছে।

‘লুকানো ভালোবাসা’ ১০ নভেম্বর থেকে প্রতি বুধ, বৃহস্পতি এবং শুক্রবার রাত ৮ টায় বাংলা ডাবিং করে প্রচারিত হবে চ্যানেলটিতে। আর পর্বগুলো পুনঃপ্রচার হবে প্রতি মঙ্গলবার দুপুর ৩টা ৫ মিনিটে এবং প্রতি বৃহস্পতিবার সকাল ১১টা ৩০ মিনিটে।

এই সিরিয়ালে দেখা যাবে অসম প্রেম, পারিবারিক রাজনীতি-দ্বন্দ্ব ও ভালোবাসার চিত্র। এর মূলে রয়েছেন বিপত্নিক ধনী মানুষ আদনান জিয়াগিল। তিনি ইস্তানবুলে সাগরের তীরে তার প্রাসাদোপম বাড়িতে দুই সন্তান নিয়ে বাস করেন। মৃত ভাইয়ের ছেলে তরুণ বেহলুলও তাদের সঙ্গে থাকে। স্ত্রী মারা যাবার পর বেশ কিছু বছর একা কাটানোর মাঝখানে হঠাৎ একদিন আদনান সাহেব প্রেমে পড়েন বয়সে অনেক ছোট বিহতারের। কিন্তু মৃত মায়ের স্থানে আর কাউকে দেখতে একদম নারাজ মেয়ে নিহাল!

আদনান সাহেবের এমন সিদ্ধান্তকে সবাই বুড়ো বয়সের ভীমরতী বলে ধরে নেয়। আবার কেউ কেউ গোটা ব্যাপারটাই বিহতারের মা লোভী মিসেস ফার্দিভসের চক্রান্ত বলে মনে করে। অন্যদিকে উচ্চাভিলাষী মায়ের উচ্চাকাঙ্খার তাড়নায় অস্থির বিহতার মাকে একটা শিক্ষা দেবার জন্য এই বিয়েতে রাজি হয়! কিন্তু অসম এই বিয়ে কী সুখ বয়ে আনে তাদের জীবনে? নানা ঘাত-প্রতিঘাতের মধ্য দিয়ে কাহিনি এগিয়ে চলে এক নির্মম পরিণতির পথে।

0 মন্তব্য(গুলি)

Write Down Your Responses

Related Posts Plugin for WordPress, Blogger...