পাকিস্তানকে ১০ উইকেটে বিধ্বস্ত করলো নিউজিল্যান্ড

প্রথম ম্যাচে অকল্যান্ডে স্বাগতিক নিউজিল্যান্ডকে হারিয়ে সিরিজে শুভ সূচনা করেছিল সফরকারী পাকিস্তান। স্পট ফিক্সিং কেলেঙ্কারির পর ৫ বছরের নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে ওই ম্যাচেই ফিরেছিলেন মোহাম্মদ আমির। তার ফেরার ম্যাচে দুর্দান্ত জয় দিয়ে উড়তে শুরু করেছিল যেন পাকিস্তান; কিন্তু, সেটা মাত্র ১দিনের জন্য। হ্যামিল্টনের সেডন পার্কে পাকিস্তানকে রীতিমত লজ্জায় ডোবাল নিউজিল্যান্ড। শুধু হারালে তো কথা ছিল, পুরো ১০ উইকেটে আফ্রিদিদের বিধ্বস্ত করে ছাড়লো নিউজিল্যান্ড।

অথচ, টস জিতে ব্যাট করতে নামা পাকিস্তানের সংগ্রহ নেহায়েত খারাপ ছিল না। নিউজিল্যান্ডের সামনে ৭ উইকেটে ১৬৮ রানের চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়েছিল পাকিস্তান। জবাবে ব্যাট করতে নেমে নিউজিল্যান্ডের দুই ওপেনার মার্টিন গাপটিল এবং কেনে উইলিয়ামসনই হারিয়ে দিল পাকিস্তানকে। হাতে বল বাকি ছিল তখনও ১৪টি।

৫৮ বলে ৯ বাউন্ডারি আর ৪ ছক্কায় ৮৭ রানে মার্টিন গাপটিল এবং ৪৮ বলে ১১ বাউন্ডারিতে ৭২ রানে অপরাজিত থাকেন কেনে উইলিয়ামসন। পাকিস্তানের বোলারদের মধ্যে কেউই কোন প্রভাব বিস্তার করতে পারেনি দুই কিউই ওপেনারের ওপর। উমর গুল ২ ওভার বল করে দেন ১৮, হোহাম্মদ আমির ৩ ওভারে দেন ৩৪, ইমাদ ওয়াসিম ৪ ওভারে ৩২, আফ্রিদি ৪ ওভারে ৩৮, ওয়াহাব রিয়াজ ৩ ওভারে ৩০ এবং শোয়েব মালিক ১.৪ ওভারে দেন ১৩ রান।

এর আগে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে উমর আকমলের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ের সৌজন্যে ১৬৮ রান সংগ্রহ করে পাকিস্তান। ২৭ বলে ৫৬ রানের ইনিংস খেলেন উমর। ৪টি করে বাউন্ডারি এবং ছক্কায় সাজানো ছিল তার ইনিংস। শোয়ব মালিক করেন ৩৯ রান। ওপেনার মোহাম্মদ হাফিজ করেন ১৯ এবং শোয়েব মাকসুদ করেন ১৮ রান। শেষ পর্যন্ত ৭ উইকেট হারিয়ে ১৬৮ রান সংগ্রহ করে পাকিস্তান। ২ উইকেট নেন ম্যাক্লেগান। ১টি করে উইকেট নেন মিচেল সান্তনার, কোরি এন্ডারসন, অ্যাডাম মিলনে এবং গ্র্যান্ড ইলিয়ট।

,

0 মন্তব্য(গুলি)

Write Down Your Responses

Related Posts Plugin for WordPress, Blogger...