ক্যামেরার ফ্ল্যাশে রক্ষা পেল শিশুর জীবন!

মার্কিন এক চার মাস বয়সি শিশুর জীবন রক্ষা পেল ক্যামেরার ফ্ল্যাশে। ফ্ল্যাশ দিয়ে ছবি তোলার পর শিশুর একটি চোখে অদ্ভুত সাদা দীপ্তি দেখতে পায় তার মা। খবর- এবিএস নিউজ`র।

খবরে বলা হয়েছে, ক্যামেরা ফোনটি ভালো না হওয়ার কারণে এমনটি ঘটেছে বলে মনে করেন মা। নতুন ক্যামেরা দিয়ে ছবি তোলার পরও একই ঘটনাই ঘটে। বুদ্ধিমতি মা দেরি না করে তার রাইডার নামের তার সন্তানকে ডাক্তারের কাছে নিয়ে যান।

পরীক্ষায় ধরা পড়ে শিশু রাইডারের বাম চোখের পেছনে রেটিনোব্ল্যাস্টোমা নামের টিউমার হয়েছে। আর এ কারণেই ফ্ল্যাশের আলো প্রতিফলিত হয়ে অদ্ভুত সাদা দীপ্তি তৈরি করছে। রোগ শনাক্ত হওয়ার পর দেরি না করে রাইডারকে একটি বিশেষায়িত ক্যান্সার হাসপাতালে পাঠিয়ে দেয়া হয়। সেখানকার চিকিৎসকরা দেখতে পান যে রাইডারের ক্যান্সার শরীরের অন্য কোথাও ছড়িয়ে পড়েনি।

চোখের বিরল রোগের নাম রেটিনোব্ল্যাস্টোমা। গত বছর মার্কিন যে সব শিশুর চোখে এ রোগ ধরা পড়েছে তাদের মধ্যে ৫০ ভাগই এরইমধ্যে মারা গেছেন বলে জানিয়েছেন দেশটির এক ক্যান্সার বিশেষজ্ঞ।মার্কিন এক চার মাস বয়সি শিশুর জীবন রক্ষা পেল ক্যামেরার ফ্ল্যাশে। ফ্ল্যাশ দিয়ে ছবি তোলার পর শিশুর একটি চোখে অদ্ভুত সাদা দীপ্তি দেখতে পায় তার মা। খবর- এবিএস নিউজ`র।

খবরে বলা হয়েছে, ক্যামেরা ফোনটি ভালো না হওয়ার কারণে এমনটি ঘটেছে বলে মনে করেন মা। নতুন ক্যামেরা দিয়ে ছবি তোলার পরও একই ঘটনাই ঘটে। বুদ্ধিমতি মা দেরি না করে তার রাইডার নামের তার সন্তানকে ডাক্তারের কাছে নিয়ে যান।

পরীক্ষায় ধরা পড়ে শিশু রাইডারের বাম চোখের পেছনে রেটিনোব্ল্যাস্টোমা নামের টিউমার হয়েছে। আর এ কারণেই ফ্ল্যাশের আলো প্রতিফলিত হয়ে অদ্ভুত সাদা দীপ্তি তৈরি করছে। রোগ শনাক্ত হওয়ার পর দেরি না করে রাইডারকে একটি বিশেষায়িত ক্যান্সার হাসপাতালে পাঠিয়ে দেয়া হয়। সেখানকার চিকিৎসকরা দেখতে পান যে রাইডারের ক্যান্সার শরীরের অন্য কোথাও ছড়িয়ে পড়েনি।

চোখের বিরল রোগের নাম রেটিনোব্ল্যাস্টোমা। গত বছর মার্কিন যে সব শিশুর চোখে এ রোগ ধরা পড়েছে তাদের মধ্যে ৫০ ভাগই এরইমধ্যে মারা গেছেন বলে জানিয়েছেন দেশটির এক ক্যান্সার বিশেষজ্ঞ।

,

0 মন্তব্য(গুলি)

Write Down Your Responses

Related Posts Plugin for WordPress, Blogger...